এই সব বসন্তে


বসন্তে ঘুমিয়ে পড়া মানে কৃষ্ণচূড়া                                  
লাল স্তম্ভ হয়ে পাহারায় মগ্ন
প্রেমিকের বুক চিরে লেপ্টে থাকা।

ফেরার কথা ছিল তার রোদ্দুরে
চুপসে যাওয়া ফুলের গন্ধে বিভোর
লবণ স্বাদ নিয়ে প্রেমিকের ঘরে, উত্তাপে।
সুবর্ণ নদীর থেকে দূরে
এই শহরে, বসন্তে জেগে উঠে
মিছিলে মৃত মাছের চোখের মত,
আর বিষন্ন রথে চেপে একদল মেঘ
ঘুরপাক খায় ধূলোর ভেতর।

এখানে, এই বসন্তে কার হৃদয় হতে
খসে পড়ে চুম্বন মৃতদের উপত্যকায়
তারা জেগেছিল কিনা জানবার আগে
ধুলোর শহরে মৃত শরীরের ঘ্রান ঘুরে,
স্বপ্নের ভেতর জেগে থাকে চোখ
সোডিয়াম আলোয় ভিঁজবে বলে।

[ জলপাই রং চোখ দু'টো কার
কই গেল সেই বিভোর বিকেল
গন্ধে মাতম শহর হাওয়ায়
উল্ঠে পড়া ভুলের উপর
কোকিলের ডাকে চমকে উঠা
অন্ধকারে চোখের আলোয়
ঝাপটে ধরে ফুলের মুখে
কাঁটার বুকে প্রেমের শপথ
]

ফড়িং শরীর নিয়ে রোদের ভেতর
একলা জেগে থাকা দৈন দিনে,
তবু এই সব বসন্তে ঘুমিয়ে পড়া
মিছিলে, সকলের অগোচরে।



( উৎসর্গ: তাদের, যাদের প্রেমিকরা এই সব বসন্তে ঘুমিয়ে পড়েছে।)

0 comments